শিরোনাম :
করোনায় মৃত্যুবরণকারী রুহুল আমিনের পরিবারের পাশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দুর্গাপূজা উপলক্ষে সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের বস্ত্র বিতরণ মানবিকতায় অনন্য ওসমানীর নার্সরা, অসুস্থ সহকর্মীকে আর্থিক সহায়তা প্রদান সিলেটে হঠাৎ ভূমিকম্প অনুভূত গোলাপগঞ্জে এক ব্যক্তির হাত-পা কেটে বিলে ফেলে দিল প্রতিপক্ষরা সহকর্মী শিমু হত্যার বিচার চাইলো বিএনএ সিলেট ওসমানী হাসপাতাল শাখা যে ৫ টি কারণে আপনাকে করলার রস খেতে হবে হবিগঞ্জে তরুণীকে তুলে নিলেন বাবা, ধর্ষণ করল ছেলে নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় গ্রেফতার ২নি জিরো সাইজের আশায় কিটো ডায়েট! জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন না তো? রাশিয়ার টিকা নির্ভরযোগ্য ও নিরাপদ: উপপ্রধানমন্ত্রী গোলাপগঞ্জের ড্রীমল্যান্ড পার্কে ওড়না পেঁচিয়ে বৃটিশ তরুণীর মৃত্যু পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় সিলেট লন্ডন সরাসরি বিমানের ফ্লাইট চালু যুক্তরাজ্যে হুট করে বেড়েছে করোনা রোগী জেনে নিন ডাস্ট অ্যালার্জি থেকে মুক্তি পাওয়ার সহজ উপায় সিলেট আওয়ামীলীগের ৪ নেতাকে কেন্দ্রে তলব চিকিৎসা করাতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার অভিযোগে মামলা রিফাত শরীফ হত্যায় স্ত্রী আয়শাসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড এমসি কলেজে তরুণী ধর্ষনঃ শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের তদন্ত কমিটি গঠন এমসি কলেজ ছাত্রলীগঃ অপকর্মে এখনো ছায়া রণজিৎ ও আজাদের এমসি কলেজে তরুণী ধর্ষনের ঘটনায় রনি,রাজন ও আইনুল রিমান্ডে সিলেটে করোনায় প্রাণ গেল আরো ২ জনের সিলেট ওসমানী হাসপাতাল নার্সেস এসোসিয়েশনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন শিশুর দাঁতের যত্ন এমসি কলেজে গণধর্ষণঃআরো ২ ধর্ষককে হবিগঞ্জ থেকে আটক এমসি কলেজে গণধর্ষণঃ ধর্ষক ছাত্রলীগ নেতা রনি হবিগঞ্জে আটক ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ : যেভাবে ধরা পড়লেন আসামি সাইফুর বন্ধ ছাত্রাবাসে ছাত্রলীগ কেন প্রশ্নবিদ্ধ এমসি কলেজের তদন্ত কমিটি!
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০২:৪২ অপরাহ্ন




সুগারের মাত্রা কত হলে বুঝবেন আপনার ডায়াবেটিস

প্রতিবেদকের নাম / ৮০ Time View
আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ ডায়াবেটিস রোগটি এখন আতঙ্ক হয়ে দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে ৪০ পেরুলেই যে কারো এই রোগে পেয়ে বসতে পারে। তাই নিয়মিত পরীক্ষা করা উচিত।

রক্তে চিনির মাত্রা পরিমাপ করে ডায়াবেটিস শনাক্ত করা যায়। ল্যাবরেটরিতে রক্ত পরীক্ষা করে ও ঘরে বসে গ্লুকোমিটার ব্যবহার করে নির্ণয় করা যায়।

আপনি যদি রাতে স্বাভাবিক খাবার খেয়ে সকালে খালি পেটে ডায়াবেটিস পরীক্ষা করে রক্তে চিনির মাত্রা ৫.৮ মিলিমোলের চেয়ে কম পান তাহলে ধরে নিতে হবে আপনার একটুও ডায়াবেটিস নেই। কিন্তু যদি চিনির মাত্রা ৫.৮ এর বেশি অথচ ৭.৮ মিলিমোলের কম হয় তাহলে আপনার ডায়াবেটিস হওয়ার বেশ ঝুঁকি আছে।

এটাকে বর্ডার লাইন বা মার্জিন পয়েন্ট বলে। তাই এটাকে বর্ডার লাইন ডায়াবেটিস বলে ধরা হয়। এছাড়া রক্তে যদি চিনির মাত্রা ৭.৮ মিলিমোলের বেশি হয়, তবে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত বলে মনে করা যায়। তবে শুধু খালিপেটে পরীক্ষাটিই ডায়াবেটিস নির্ণয়ের জন্য যথেষ্ট নয়। খালিপেটে নির্ণয়ের পর ৭৫ গ্রাম গ্লুকোজ পানিতে গুলে খেয়ে দুই ঘণ্টা পর রক্তে আবার চিনির মাত্রা পরীক্ষা করা দরকার।

এ ক্ষেত্রে যদি চিনির মাত্রা ৭.৮ মিলিমোল বা তার থেকে কম হয়, তবে ডায়াবেটিস নেই। যদি ৭.৮ এর বেশি, কিন্তু ১১ মিলিমোল বা তার চেয়ে কম হয়, তবে বর্ডার লাইন ডায়াবেটিস বলে ধরে নেয়া যায়। আর যদি চিনির মাত্রা ১১ মিলিমোলের বেশি হয়, তবে ডায়াবেটিস আক্রান্ত বলে ধরে নিতে হয়। এক্ষেত্র ডাক্তার কে সরাসরিভাবে বলা ভালো হয় ,।

খালি পেটে বা খাবারের আগে রক্তের গ্লুকোজ পরীক্ষা (Fasting Blood Glucose) : এ পরীক্ষাটি সকালে নাস্তার আগে খালি পেটে করতে হয়। এ পরীক্ষাটির স্বাভাবিক মাত্রা ৬.১ মিলি মোল/লিটার বা তার কম হলে আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত নন। * খাবারের ২ ঘণ্টা পর রক্তের গ্লুকোজ পরীক্ষা (2 Hour After Breakfast) : এ পরীক্ষাটি নাস্তা খাওয়ার দুই ঘণ্টা পর করতে হয়।

এর স্বাভাবিক মাত্রা ১০ মিলি মোল/লিটার বা তার কম হলে আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত নন। * যে কোনো সময় রক্তের গ্লুকোজ পরীক্ষা (Random) : এ পরীক্ষাটি দিনের যে কোনো সময় করা যেতে পারে। ওই পরীক্ষাটির স্বাভাবিক মাত্রা ৫.৫ থেকে ১১.১ মিলি মোল/লিটার পর্যন্ত ধরা হয়। * ওরাল গ্লুকোজ টলারেন্স টেস্ট (OGTT) : যাদের খালি পেটে FBG ৬.১ এর বেশি কিন্তু ৭.০ মিলি মোল/লিটারের কম কিংবা দিনের যে কোনো সময় ৫.৫ এর বেশি কিন্তু ১১.১ মিলি মোল/লিটারের কম, তাদের এ পরীক্ষাটি করা খুবই জরুরি। কারণ এ পরীক্ষাটির মাধ্যমে কারও ডায়াবেটিস আছে কি নেই সে ব্যাপারে নিশ্চত হওয়া যাবে।

এ পরীক্ষাটির জন্য রোগীকে প্রথমে খালি পেটে রক্ত দিতে হবে। এরপর ৭৫ গ্রাম গ্লুকোজ পানিতে মিশিয়ে খেতে হবে এবং ঠিক দুই ঘণ্টা পর রোগীকে আবার রক্ত দিতে হবে। এই দুই ঘণ্টা রোগী অন্য কোনো খাবার খেতে পারবেন না এবং কোনো ধরনের শারীরিক পরিশ্রমের কাজও করতে পারবেন না। ধূমপান করা যাবে না। এ পরীক্ষায় যে রোগীর খালি পেটে ৭.০ মিলি মোল/লিটারের চেয়ে বেশি এবং দুই ঘণ্টা পর ১১.১ মিলি মোল/লিটারের চেয়ে বেশি হলে তাকে নিশ্চিত ডায়াবেটিসের রোগী হিসেবে চিহ্নিত করা যাবে। নিয়ম হলো একজন সুস্থ-সবল মানুষ প্রতি বছর একবার করে তার রক্তের গ্লুকোজের মাত্রাটি জেনে নেবেন।

এতে তিনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত কিনা তা জানতে পারবেন। অনেকে রয়েছেন, তারা রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বেশি নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন; কিন্তু জানেনই না তিনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। আর এ রকমটি হলে এটি যে কোনো সময় আপনার জীবনের জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে। তাই আজই যে কোনো ডায়াবেটিস সেন্টারে গিয়ে আপনার রক্তের গ্লুকোজের সঠিক মাত্রাটি জেনে নিন ও সুস্থ দেহে নিরাপদ থাকুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর